নিজেদের শক্তিমত্তার প্রমাণ দিতে চান মাহমুদুল্লাহ

খেলা

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কাল থেকে শুরু হওয়া দুই টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিজেদের ব্যাটিংয়ের সামর্থ্য দেখাতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। মাহমুদুল্লাহর মতে, ক্রিকেটের এই ফরম্যাটে দলের উন্নতি অপরিহার্য এবং শুধুমাত্র মানসিকতার অভাবে এই ফরম্যাটে বাংলাদেশ দুর্বল।

মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘আক্রমনাত্মক হওয়ার মানে হচ্ছে আপনি লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করছেন। আপনাকে কন্ডিশন এবং পরিস্থিতি বিচার করতে হবে, কিন্তু আপনি যদি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে উদ্দেশ্য নিয়ে ব্যাট না করেন তবে, আপনি সমস্যায় পড়বেন। সেখান থেকে বেরিয়ে আসা কঠিন।’
তিনি আরও বলেন, ‘টপ-অর্ডার কিংবা মিডল-অর্ডার যেখানেই হোক নিজের শক্তির উপর ভিত্তি করে সবার ব্যাট করা গুরুত্বপূর্ণ।’

বাংলাদেশ এই ফরম্যাটে ১২৩টি ম্যাচ খেলেছে এবং মাত্র ৪৩টিতে জিতেছে। এরমধ্যে সবকটি জয় দুর্বল দলের বিপক্ষে এবং সহায়ক উইকেটে বানিয়ে। ৭৮টি ম্যাচে তারা হেরেছে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ছয় ম্যাচের মধ্যে মাত্র দু’টিতে জিতেছে টাইগাররা। হেরেছে চারটিতে। যদিও আফগানিস্তান নিজেদের পছন্দের ফরম্যাটে খেলতে নেমেছে। তবে সহায়ক উইকেট ছাড়া সংক্ষিপ্ত ভার্সনে জয় পাওয়াটা এখনো বাংলাদেশের জন্য কঠিন।

নিজ মাঠে সুবিধাজনক উইকেট তৈরি করে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের মতো দলের বিপক্ষে জিততে পারলেও শক্তিশালী স্পিন আক্রমণ থাকা এশিয়ান দলগুলোর বিপক্ষে খুব কম ফলই আনতে পেরেছে বাংলাদেশ। তবে সঠিক লক্ষ্য এবং নির্ভিক ক্রিকেট খেলতে পারলে এ ফরম্যাটে আফগানদের বিপক্ষে দলের জয় পাওয়ার সামর্থ্য আছে মনে কবরছেন মাহমুদুল্লআহ।

তিনি বলেন, ‘প্রত্যাশা অবশ্যই জয়ের। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে যে কোন নির্দিষ্ট দিনে যে কেউ জিততে পারে। আমাদের ভালো খেলতে হবে এবং আমাদের ফোকাস শুধুমাত্র কালকের ম্যাচে। আমরা শুরুটা ভালো করতে পারলে সেটা টেনে নিয়ে যেতে পারবো।’

মাহমুদুল্লাহ আরও বলেন, ‘আমি এতটুকুই বলতে চাই, ব্যাটার-বোলার সবাই ইতিবাচক খেলার চেষ্টা করবো।’

ওয়ানডে সিরিজে তৃতীয় ম্যাচে পরাজয় বাংলাদেশের মোমেন্টাম নস্ট করেছে- অনেকেই এমনটা মনে করলেও এটা নিয়ে চিন্তিত নন মাহমুদুল্লাহ।

মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘পুরো বাংলাদেশ শিবিরই ভালো অবস্থায় আছে। যেটি আমি আগেই বলেছি, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট এমন যে আপনি এক নম্বর র‌্যাংকিং দল বা দশম বা দ্বাদশ দল হোন-না কেন, এটি নির্ভর করে একটি ভালো জুটি, একটি ভাল বোলিং জুটির উপর।’

তিনি বলেন, ‘ওয়ানডে বা টেস্টে, আপনি ঘুড়ে দাঁড়ানোর সময় পান। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আপনি সেই সময় পাবেন না। আপনি যাই করুন না কেন, আপনাকে দ্রুতই চিন্তা করতে হবে। একইভাবে চেষ্টা করতে হবে। কোনো কোনো দিন আপনি সফল হতে পারেন, অন্য দিন আপনি সফল নাও হতে পারে। তবে আমি মনে করি, আমরা কিভাবে আমাদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলতে চাই, সেটি আমাদের উপর নির্ভর করবে। আমরা সরাসরি সফল নাও হতে পারি, যদি আমরা উন্নতি করি, তবে আমরা পরে ফলাফল পাবো।’