শিক্ষার্থীকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেলো স্কুলশিক্ষকের

সারাবাংলা

নওগাঁর নিয়ামতপুরে এক শিক্ষার্থীকে বাঁচাতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে এক স্কুলশিক্ষক। শুক্রবার সকালে রাজশাহীর আমানা হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এর আগে গত বুধবার এ দুর্ঘটনা ঘটে। কুমারগাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমান শিক্ষকের মৃত্যুসংবাদটি নিশ্চিত করেছে।

মৃত স্কুলশিক্ষকের নাম আব্দুল মজিদ (৫০)। তিনি উপজেলার সদর ইউনিয়নে বালিচাঁদ গ্রামের রমজান আলী মোল্লার ছেলে এবং কুমারগাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিদ্যালয়ের ছুটি হলে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিলেন তিন শিক্ষক আব্দুল মজিদ, রায়হান ও মজিবুর রহমান। পথে নুরপুর মোড়ে পৌঁছালে পতকৈল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাস্তা পার হচ্ছিল। তখন এক শিক্ষার্থী মোটরসাইকেলের সামনে চলে এলে তাকে বাঁচাতে জোরে ব্রেক চাপার ফলে রাস্তার ওপর পড়ে যান তিন শিক্ষক। এ ঘটনায় অন্য দুই শিক্ষক সামান্য আহত হলেও আব্দুল মজিদের পা ভেঙে যায় এবং মাথায় আঘাত পান। এ ঘটনায় শিশু শিক্ষার্থী প্রাণে রক্ষা পায়। স্থানীয়রা তাঁদের নিয়ামতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করালে আব্দুল মজিদের অবস্থার অবনতি হয়। পরে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেলে পাঠানো হয়। পরে ওই রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহীর প্রাইভেট আমানা হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করান স্বজনেরা। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার ভোরে সেখানেই মারা যান তিনি।

নিয়ামতপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ূন কবির বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় কেউ মারা গেছে এ বিষয়ে কোনো তথ্য আমার জানা নেই।