মারিওপোলে আত্মসমর্পণে অস্বীকৃতি ইউক্রেনের

Slider right সারাবিশ্ব

ইউক্রেনের বন্দরনগরী মারিওপোলে যুদ্ধরত ইউক্রেন সেনাদের আত্মসমর্পণ করার জন্য যে প্রস্তাব দিয়েছিলো রাশিয়া তা প্রত্যাখ্যান করেছে ইউক্রেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানা যায়, স্থানীয় সময় সোমবার (২১ মার্চ) ভোর ৫টার মধ্যে আত্মসমর্পণ করার প্রস্তাব দিয়েছিল রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। রাশিয়ার দেয়া সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে ইউক্রেনের কর্তৃপক্ষ।

রাশিয়ার প্রস্তাব প্রাত্যাখ্যান করে ইউক্রেনের উপ-প্রধানমন্ত্রী ইরিনা ভেরেশচুক জানিয়েছেন, আত্মসমর্পণের জন্য কোন ধরণের প্রশ্নই থাকতে পারে না।

ইউক্রেনের গণমাধ্যম ইউক্রেনস্কা প্রাভদা ইরিনা ভেরেশচুকের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ইউক্রেন ইতোমধ্যেই রাশিয়াকে আত্মসমর্পণ না করার বিষয়ে জানিয়ে দিয়েছে।

এর আগে রুশ বার্তাসংস্থা রিয়া নভোস্তি জানিয়েছে, রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বন্দরনগরী মারিওপোলে সকাল ১০টার মধ্যে মানবিক করিডোর খুলে দিতে চায়। সেজন্য তারা ইউক্রেনের পক্ষ থেকে ভোর ৫টার মধ্যেই লিখিত সম্মতি পেতে চায়।

রাশিয়ান ন্যাশনাল সেন্টার পর ডিফেন্স ম্যানেজমেন্টের ডিরেক্টর জেনারেল (ডিজি) কর্নেল মিখাইল মিজিনসেভ ইউক্রেনের সেনাদের প্রতি অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, চলমান যুদ্ধে মারিওপোলে ভয়ানক মানবিক বিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে। ইউক্রেনের সেনাদের প্রতি আমরা আহ্বান জানাচ্ছি, রুশ বাহিনীর কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আপনারা আত্মসমর্পণ করুন। অস্ত্র সমর্পণ করলে মারিওপোল থেকে নিরাপদে বের হওয়ার সুযোগ করে দেয়া হবে। রুশ বাহিনীর পক্ষে আমি নিশ্চয়তা দিচ্ছি।

স্থানীয় কর্মকর্তারা আত্মসমর্পণের শর্তে রাজি না হলে তাদের ‘সামরিক ট্রাইব্যুনালের’ মুখোমুখি হতে হবে বলেও মিখাইল মিজিনসেভ উল্লেখ করেন।