আমি অনেক লজ্জিত: অপু বিশ্বাস

Slider right বিনোদন

আজ পহেলা বৈশাখ, বাংলা ১৪২৯। ১৪২৮ সনকে বিদায় জানিয়ে বাংলা বর্ষপঞ্জিতে যুক্ত হলো নতুন বছর। পরপর দুই বছর করোনা মহামারির কারণে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান সীমিত কিংবা ঘরোয়া পরিবেশে হলেও এবার নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাঙালি বরণ করছে নতুন বছরকে। পিছিয়ে নেই শোবিজ তারকারাও। বাংলা নতুন বছরকে বরণ করছেন নানা ভাবে তাঁরা।

সবাইকে বাংলা নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে ঢাকাই চলচ্চিত্রের কুইন খ্যাত অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস বলেন, করোনা মহামারির কারণে গত দুই বছর তেমন ভাবে পহেলা বৈশাখ পালন করা হয়নি। তবে এবার কিছুটা করোনার প্রকোপ কম থাকায় ফের আগের মত করেই নতুন বছরকে বরণ করছি আমরা। এবার রোজায় পহেলা বৈশাখ হওয়ায় আমাদের যে ঐতিহ্য সকালে আনন্দ করে পান্তা-ইলিশ খাওয়া তা হয়তো তেমন ভাবে পালন করতে পারছিনা। তারপরও আমাদের যেহেতু সেহরি ও ইফতার আছে এই দুই সময় আমরা আনন্দটা করতে পারি। পাশাপাশি আমাদের লাল-সাদা পোশাক পরার যে ঐতিহ্য তা তো আছেই। মোট কথা আনন্দটা যদি আমাদের মত করে ভাগাভাগি করে নেই তাহলে অনেক ভালো লাগবে।

সম্প্রতি টিপ ও হিজাব নিয়ে বেশ কিছু বিতর্ক উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে জনপ্রিয় এই নায়িকা বলেন, আসলে আমার কাছে মনে হয় নারীর সৌন্দর্যের প্রতীক টিপ কিংবা হিজাব। আমরা যখন সাজগোজ করি তখন টিপ পড়ায় কিন্তু অনেক সৌন্দর্য বেড়ে যায়। পাশাপাশি মুসলিম সম্প্রাদায়ের নারীদের সৌন্দর্য বহন করে হিজাব। এটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কিছুদিন ধরেই অনেক আলোচনা হচ্ছে। তবে আমি বলবো আমি, আমরা মানুষ। আমরা একটি সুন্দর দেশ, গণতান্ত্রিক দেশে বাস করি। আমাদের সবার একটি নিজের ভালো লাগা থাকে। সুতরাং এইসব নিয়ে বারাবারি করা একদমই ঠিক না।

তিনি আরও বলেন, আমি মেয়ে হিসেবে অনেক লজ্জিত। কেননা আমাদের ড্রেসআপ, সৌন্দর্য নিয়েও মানুষ আলোচনা করে। আমাদের বাসায় মা আছে, বোন আছে। আমি চাইবো তাদের যেনো আমরা যথাযথ সম্মান করতে পারি। শুধু তাই নয় সোশ্যাল মিডিয়াতেও যেনো তাঁদের সম্মান রক্ষা করতেব পারি সেটির দিকেও লক্ষ রাখতে হবে।

উল্লেখ্য, অপু বিশ্বাসকে সর্বশেষ দেখা গেছে ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২’ছবিতে। সিনেমাটিতে তার বিপরীতে ছিলেন বাপ্পী চৌধুরী। এ দিকে মুক্তির অপেক্ষায় আছে ‘ছায়াবৃক্ষ’ নামের অনুদানের সিনেমায় অপুর নায়ক হয়েছেন নিরব হোসাইন।
সূত্র: বাংলা ইনসাইডার