ইউক্রেনের অভ্যন্তরে বাস্তুচ্যুত ৮০ লাখের বেশি মানুষ: জাতিসংঘ

সারাবিশ্ব

জাতিসংঘ বলছে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত দেশটির অভ্যন্তরে ৮০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। যুদ্ধের কারণে এসব লোকজন নিজেদের বাড়িঘর ছাড়লেও তারা থেকে গেছেন দেশের অভ্যন্তরেই। মঙ্গলবার বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

গত ১৭ এপ্রিল থেকে ৩ মে এর মধ্যে ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন (আইওএম) দ্বারা পরিচালিত গবেষণার ওপর ভিত্তি করে জাতিসংঘ এ তথ্য জানায়।

আইওএম-এর সমীক্ষা অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত মানুষের নানা সংকট ও তাদের আশ্রয়ের প্রয়োজনীয়তার অংশ হিসেবে আর্থিক সহায়তার প্রসঙ্গ তুলে ধরে। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থাটি বলছে, বাস্তুচ্যুত লোকজনের মধ্যে প্রায় অর্ধেক সংখ্যক লোক (৪৪ শতাংশ) তীব্র মানবিক সংকটের কারণে আবারও স্থানান্তরের কথা বিবেচনা করছেন।

আইওএমের মহাপরিচালক আন্তোনিও ভিটোরিনো বলেন, ‘যারা অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত এবং ইউক্রেনের যুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্ত, তাদের চাহিদা প্রতি ঘণ্টায় ঘণ্টায় বাড়ছে।’

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। দেশটির রাজধানী কিয়েভসহ বিভিন্ন শহরে গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। যুদ্ধে দুই পক্ষেরই ব্যাপক প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে। জাতিসংঘ বলছে, যুদ্ধের কারণে ইতোমধ্যে ইউক্রেন ছেড়ে অন্য দেশে আশ্রয় নিয়েছেন ৫০ লাখেরও বেশি মানুষ।

সূত্র জানায়, রাশিয়ার সীমান্তবর্তী ইউক্রেনের শহরগুলো ঘিরে রেখেছে রুশ সামরিক বাহিনী; হামলা চলছে ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভেও। রাশিয়ার গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় খারকিভ শহরেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে।