শুরুর দিকে আমি বেশ ভয়েই ছিলাম: অভিনেত্রী দিঘী

Slider right বিনোদন

প্রার্থনা ফারদিন দীঘি শিশুশিল্পী হিসেবে বড় পর্দায় পা রাখেন। বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি। শিশুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তিনবার অর্জন করেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এখনো দর্শকদের চোখে ভাসে সেই ছোট্ট দীঘির অভিনয় আর কানে বাজে তার মিষ্টি সংলাপ। দীঘি এখন আর শিশুশিল্পী নেই, দীর্ঘ বিরতি কাটিয়ে নায়িকা হিসেবে চলচ্চিত্রে নাম লেখিয়েছেন।

চলচ্চিত্রে কাজের পাশাপাশি মিউজিক ভিডিওতেও কাজ করেছেন দিঘী। সেই ধারাবাহিকতায় কয়েক মাস পর ফের মিউজিক ভিডিওতে মডেল হলেন তিনি। গানের শিরোনাম ‘আউলা ঝাওলা’। মিউজিক ভিডিওটি নির্মিত হয়েছে আরটিভি মিউজিকের ব্যানারে। নাচ নির্ভর এই মিউজিক ভিডিওটি ঈদ উল ফিতরে আরটিভির বিশেষ অনুষ্ঠানে এবং আরটিভি মিউজিক ইউটিউব চ্যানেলে রিলিজ হয়েছে।

নতুন এই মিউজিক ভিডিওটি মুক্তি পর বেশ সাড়া ফেলেছে। বিশেষ করেই সেই ছোট্ট দিঘীর ভিন্ন লুক বেশ প্রশংসিত হচ্ছে। দিঘী বলেন, ঈদের আগে বেশ ব্যস্ত ছিলাম। তাই তেমন ভাবে কোন প্রচার-প্রচারণা করতে পারিনি। কিন্তু মিউজিক ভিডিওটি প্রকাশের পর এত এত সবার প্রশংসা পাচ্ছি তা সত্যি আমি কল্পনাও করিনি।

তিনি আরও বলেন, শুরুর দিকে আমি বেশ ভয়েই ছিলাম কেননা সম্পূর্ন এক ভিন্ন লুকে আমি কাজ করেছি। দর্শকরা যে আমাকে এই রূপেও এত সুন্দর ভাবে গ্রহণ তা আমার কল্পনার বাইরে ছিলো। সব কিছু মিলিয়ে বেশ ভালো লাগছে। রোজা রেখে যেই কষ্টটা করেছি তা স্বার্থক হয়েছে।

‘আউলা ঝাওলা’ গানটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন শওকত আলী ইমন। গীতিকার মিজানুর রহমানের লেখা গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন আরটিভির ‘বাংলার গায়েন’-এর কণ্ঠশিল্পী লাবনী। ভিডিও নির্মাণ করেছেন উজ্জল রহমান। কোরিওগ্রাফিতে ছিলেন আসাদ খান।