শ্রীলঙ্কার নতুন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে

Slider সারাবিশ্ব

সাবেক প্রধানমন্ত্রী মহিন্দা রাজাপাকসের পদত্যাগের পর শ্রীলঙ্কায় গঠিত হতে যাচ্ছে নতুন সরকার। আর নবগঠিত এই সরকারে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিচ্ছেন রনিল বিক্রমাসিংহে। তিনি লঙ্কান রাজনৈতিক দল ইউএনপির নেতা। বৃহস্পতিবার (১২ মে) স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় সাড়ে ৬টায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে শ্রীলঙ্কান সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিরর। সংবাদমাধ্যমটি বলছে, গত সোমবার শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে সরে দাঁড়ান মাহিন্দা রাজপাকসে। এরপর বুধবার সন্ধ্যায় প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসের সাথে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন রনিল বিক্রমাসিংহে। তিনিই আজ দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন। ডেইলি মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শপথ নেওয়ার পর বিক্রমাসিংহে কলম্বোর একটি মন্দির পরিদর্শন করবেন এবং এরপরই দায়িত্বগ্রহণ করবেন তিনি।

মূলত, প্রায় ১ মাস থেকেই বিক্ষোভের আগুনে জ্বলছে শ্রীলঙ্কা। চলমান এই বিক্ষোভের ফলে প্রধানমন্ত্রী মহিন্দা রাজাপাকসে পদত্যাগ করতে বাধ্য হলেও প্রেসিডেন্ট এখনো ক্ষতমতায় রয়েছেন। বিক্ষুব্ধ জনতা তারও পদত্যাগ দাবি করে আসছে। এর ফলে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সরকার সমর্থকদের দফায় দফায় সংঘর্ষ চলছে। চলমান এই বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের জন্য শ্রীলঙ্কায় চলমান কারফিউর সময় আরো বৃদ্ধি করা হয়েছে। গত সোমবার দেশটিতে নজিরবিহীন সহিংসতা দেখা যায়। ওই দিন ৯ জন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়। রাজাপাকসেদের পৈত্রিক বাসভবন জ্বালিয়ে দেয়া হয়, প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে হামলা চালানো হলে তিনি সেনাবাহিনীর তদারকিতে এক নৌঘাঁটিতে আশ্রয় নেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য রাজধানী কলম্বোর রাস্তায় ব্যাপক সামরিক ও পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। গোলযোগকারীদের দেখামাত্র গুলির নির্দেশ দেয়া হয়েছে। দেশব্যাপী আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৭ টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করা হয়েছে।