যুদ্ধে প্রতিদিন ৬০ থেকে ১০০ সেনা হারাচ্ছে ইউক্রেন: জেলেনস্কি

Slider right সারাবিশ্ব

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বুধবার প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে বলেন, যুদ্ধে প্রতিদিন ৬০ থেকে ১০০ ইউক্রেনীয় সেনা মারা যাচ্ছেন; আহত হচ্ছেন অন্তত ৫০০ জন। ৪৪ বছর বয়স্ক জেলেনস্কি দোভাষীর মাধ্যমে মার্কিন নিউজগ্রুপ নিউজম্যাক্সকে বলেন, ‘দেশের পূর্বাঞ্চলের পরিস্থিতি খুবই খারাপ। আমরা প্রতিদিন ৬০ থেকে ১০০ সেনা হারাচ্ছি, প্রায় ৫০০ জন আহত হচ্ছেন।’

পূর্বের লুগানস্ক অঞ্চলের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টায় রাশিয়ান শক্তিশালী বাহিনীর অগ্রযাত্রা প্রতিহত করার সময় সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ব্যাপক গোলাবর্ষণ এবং বিমান হামলার পাশাপাশি দীর্ঘ অবরোধের পর রুশ বাহিনী সেভেরোদোনেতস্ক শহরের নিয়ন্ত্রণের কাছাকাছি রয়েছে।

জেলেনস্কি বলেন, ‘পূর্বাঞ্চলে আমরা আমাদের প্রতিরক্ষামূলক অবস্থান ধরে রেখেছি। যুদ্ধক্ষেত্র থেকে ইঙ্গিত পাওয়া যায় যে, রুশরাও সেখানে উল্লেখযোগ্য ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে।’

গত সপ্তাহে ইউক্রেন সরকার জানিয়েছে, অনুমিত হিসাবে ২৪ ফেব্রুয়ারি হামলা শুরুর পর থেকে রুশরা এ পর্যন্ত ৩০ হাজারের বেশি সেনা হারিয়েছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। দেশটির রাজধানী কিয়েভসহ বিভিন্ন শহরে গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। যুদ্ধে দুই পক্ষেরই ব্যাপক প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে। জাতিসংঘ বলছে, যুদ্ধের কারণে ইতোমধ্যে ইউক্রেন ছেড়ে অন্য দেশে আশ্রয় নিয়েছেন ৫০ লাখেরও বেশি মানুষ। আর অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ৮০ লাখের বেশি লোক।

সূত্র জানায়, রাশিয়ার সীমান্তবর্তী ইউক্রেনের শহরগুলো ঘিরে রেখেছে রুশ সামরিক বাহিনী; হামলা চলছে ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভেও। রাশিয়ার গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় খারকিভ শহরেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে। সূত্র: বাসস।