‘টাইগারদের ব্যাটিংয়ে কোনো আত্মবিশ্বাস নেই’

Slider right খেলা

বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যানদের আত্মবিশ্বাসে ঘাটতি দেখছেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে অ্যান্টিগায় প্রথম ইনিংসে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ১০৩ রানে অলআউট বাংলাদেশ। ১৬২ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ১০৯ রানে ৬ উইকেট হারানো বাংলাদেশ শেষপর্যন্ত ২৪৫ রান করে।

৮৪ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে খালেদ আহমেদের গতির মুখে পড়ে মাত্র ৯ রানেই ৩ উইকেট হারায় স্বাগতিক উইন্ডিজ। তৃতীয় দিনের শেষ বিকালে ক্যারিবীয়রা আর কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪৯/৩ রানে দিনের খেলা শেষ করে।

রোববার চতুর্থ দিনে ব্যাটিংয়ে নামার আগে জয় থেকে মাত্র ৩৫ রান দূরে উইন্ডিজ। ২৮ ও ১৭ রানে অপরাজিত আছেন জন ক্যাম্পবেল ও জার্মেইন ব্লাকউড।

বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং নিয়ে প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেন, দুই ইনিংসেই অনেকে আলগা শট, অনেক বাজে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রথম ইনিংসে ১০৩ রান, অবশ্যই এর চেয়ে বেশি রান করা উচিত। দ্বিতীয় ইনিংসেও ২৪৫ রানের চেয়ে বেশি রান করা যেত। এটাই শেষ কথা, অনেক বেশি আলগা শট খেলেছি আমরা।

তিনি আরও বলেন, ব্যাটসম্যানরা সবাই আত্মবিশ্বাসের ঘাটতিতে ভুগছে। আমাদের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান যারা আছে- মুমিনুল হক সৌরভ, নাজমুল হোসেন শান্তদের আত্মবিশ্বাসে ঘাটতি আছে। ক্রিকেটে আত্মবিশ্বাস অনেক বড় ব্যাপার। এ মুহূর্তে ছেলেদের ব্যাটিংয়ে কোনো আত্মবিশ্বাস নেই।

দুই ইনিংসে ফিফটি তুলে নিয়েছেন অধিনায়ক সাকিব। প্রথম ইনিংসে শূন্যরানে আউট হলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ৬৪ রান করেন নুরুল হাসান সোহান।

সাকিব-সোহানের ব্যাটিং নিয়ে কোচ বলেন, ওরা দুজন ভালো ব্যাটিং করেছে। ঝুঁকি কম নিয়ে খেলেছে। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দেখিয়েছে ওদের কী করা উচিত ছিল। কিন্তু নতুন বল দুজনকেই আউট করেছে। ৬০ রানের ইনিংস আমাদের টেস্ট জেতাবে না। আমাদের সেঞ্চুরি করতে হবে। দুজন ৬০ রানের ইনিংস খেলেছে। দুজনের কেউই সেঞ্চুরি করেনি। এটাই মূল কথা।