‘ইসরাইলকে বাঁচানোর চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র’

Slider সারাবিশ্ব

আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ যে গুলিতে নিহত হয়েছিলেন সেটি পরীক্ষা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে পরীক্ষার পর তারা বলেছে, ইসরাইলের স্নাইপারের ছোঁড়া গুলিতেই তিনি নিহত হয়েছেন, সেই রকম নিশ্চিত কোনো সিদ্ধান্তে তারা পৌঁছাতে পারেননি। রিপোর্টে যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ইসরাইলের গুলি ‘খুব সম্ভবত শিরিন নিহত হওয়ার কারণ’।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিবৃতিতে আরও বলেছে, ব্যালাস্টিক বিশেষজ্ঞরা দেখেছেন গুলিটি খুবই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যার কারণে নিশ্চিত সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়নি।

ইসরাইল এবং ফিলিস্তিনের করা তদন্ত যাচাই করে যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তা সহায়ক বলেছেন, গুলিটির ফরেনসিক পরীক্ষা করে তারা দেখেছেন এটি ইচ্ছাকৃতভাবে ছোঁড়া হয়েছে এমনটি বিশ্বাস করার কোনো কারণ নেই।

গত ১১ মে শিরিন আবু আকলেহ ফিলিস্তিনের জেনিনে নিহত হন। তার মাথায় এসে সরাসরি গুলি আঘাত হানে। তিনি যে সময়টায় গুলিবিদ্ধ হন সে সময় ‘প্রেস’ লেখা সংবলিত জ্যাকেট পড়া ছিলেন এবং তার মাথায় হেলমেট ছিল।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের এমন হটকারী রিপোর্টকে প্রত্যাখান করেছে ফিলিস্তিন।

ফিলিস্তিন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের এক্সিকিউটিভ কমিটির সদস্য ওয়াসেল আবু ইউসুফ সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, সত্যিটা একদম পরিস্কার। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র সেটি প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকছে। তারা ইসরাইলকে বাঁচাতে চাইছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা বলছি ইসরাইল আবু আকলেহকে হত্যা করেছে। আর এর দায় তাদের নিতে হবে।
সূত্র: আল জাজিরা