শরীয়তপুরে ৩০ গ্রামে পালিত হচ্ছে ঈদ

সারাবাংলা

সুরেশ্বর পীরের অনুসারীরা শরীয়তপুর জেলার ৪ উপজেলার ৩০টি গ্রামে শনিবার ঈদুল আযহা পালন করছেন। অন্তত ১০ হাজার ভক্ত এ ঈদে অংশগ্রহণ করছে এবং ঈদের নামাজ আদায় করেছেন বলে জানা গেছে। সুরেশ্বরের ভক্ত প্রেমতলার আবদুল আলমি চৌকিদার এ খবর নিশ্চিত করেছে।

সুরেশ্বর পীরের দরবার সূত্র জানায়, সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে প্রায় ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে সুরেশ্বর পীরের সকল ভক্ত ও তাদের মুরিদানেরা একই নিয়মে ঈদ উৎসব পালন করে আসছেন। নড়িয়া উপজেলার সুরেশ্বর, চন্ডিপুর, ইছাপাশা, থিরাপাড়া, ঘড়িষার, কদমতলী, নিথীরা, মানাখানা, নশাসন, ভুমখারা, ভোজেশ্বর, জাজিরা উপজেলার কালাইখার কান্দি, মাদবর কান্দি, সদর উপজেলার বাঘিয়া, কোটাপাড়া, বালাখানা, প্রেমতলা, ডোমসার, শৌলপাড়া, ভেদরগঞ্জ উপজেলার লাকার্তা, পাপরাইল ও চরাঞ্চলের ১০টি গ্রামসহ প্রায় ৩০টি গ্রামের অন্তত এক হাজার পরিবারে ১০ হাজারেরও বেশি নারী-পুরুষ শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় সুরেশ্বর দরবার শরীফে ঈদের জামাত শেষে সেমাই পোলাও খেয়ে পরিশেষে পশু কুরবনির মাধ্যমে ঈদুল আযহা পালন করেন।

সুরেশ্বর পীরের বর্তমান গদিনীশীন মুত্তাওয়ালী সৈয়দ কামাল নুরী বলেন, দীর্ঘ দিন যাবৎ আমরা সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে নামাজ শেষে ঈদের উৎসব পালন করে আসছি। এর ধারাবাহিকতায় শরীয়তপুর জেলার ৩০টি গ্রামের অন্তত ১০ হাজার মুরিদ আমাদের সঙ্গে শনিবার ঈদ পালন করছে। একই সঙ্গে তারা ঈদের নামাজ আদায় করছেন।