‘পশ্চিমাদের উচিত ইউক্রেনকে অস্ত্র দেওয়া বন্ধ করা’

Slider right সারাবিশ্ব

ইউক্রেনকে পশ্চিমা বিশ্বের অস্ত্র দেওয়া বন্ধ করার আহ্বান জানালেন যুক্তরাজ্যের লেবার পার্টির সাবেক প্রধান জেরেমি করবিন। তিনি বলেন, পশ্চিমা বিশ্বের উচিত ইউক্রেনকে অস্ত্র দেওয়া বন্ধ করা। কারণ ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীকে অস্ত্র সরবরাহ করার মাধ্যমে রাশিয়ার সঙ্গে চলমান সংঘাত বিস্তার শুধু লাভ করবে, এর অবসান হবে না।

পশ্চিমা বিশ্বের নেতারা ইউক্রেনে শান্তি প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে তেমন কোনো কথা না বলায় তাদের সমালোচনা করেন ব্রিটিশ এ রাজনীতিক।

লেবাননের আল মায়াদিন টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে করবিন আরও বলেন, অস্ত্র ঢালার মাধ্যমে আমরা কোনো দিন এ সমস্যার সমাধান করতে পারব না; বরং এটি শুধু যুদ্ধকে দীর্ঘায়িত করবে। তাতে আমাদের বছরের পর বছর ধরে এ সংঘাত দেখতে হবে।

জেরেমি করবিন বলেন, বিশ্বের তেমন কোনো নেতাই শান্তি শব্দটি উচ্চারণ করছেন না দেখে তিনি বিশেষভাবে হতাশ। তারা শুধু যুদ্ধ পছন্দ করেন এবং যুদ্ধের ভাষা ব্যবহার করছেন।

লেবার দলের সাবেক এ নেতা যুদ্ধ দীর্ঘায়িত করার বিপর্যয়কর পরিণতি সম্পর্কে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, এতে ইউক্রেন এবং রাশিয়ার জনগণের দুর্ভোগ বাড়বে, পাশাপাশি সারা বিশ্বের নিরাপত্তা এবং স্থিতিশীলতা হুমকির মুখে পড়বে। ফলে চলমান এই সংঘাতের শান্তিপূর্ণ সমাধানে পৌঁছানোর জন্য বিশ্বের নেতাদের প্রচেষ্টা জোরদার করা উচিত।

ইউক্রেন-রাশিয়া সংঘাত সমাধানের ক্ষেত্রে জেরেমি করবিন জাতিসংঘকে কেন্দ্রীয় ভূমিকায় দেখতে চান। এ ছাড়া আফ্রিকান ইউনিয়ন এবং আরব লিগ যুদ্ধ বিরতির ক্ষেত্রে আলোচনায় সহযোগিতা করতে পারে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

নিজের রাজনৈতিক দলের ভেতরে ইহুদিবাদবিরোধী চেতনা ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে ২০২০ সালের অক্টোবরে লেবার দলে জেরেমি করবিনের সদস্যপদ স্থগিত করা হয়। এর পর থেকে তিনি বিশ্ব শান্তি, পরিবেশ সংরক্ষণ, দারিদ্র্য ও সামাজিক বৈষম্য দূরীকরণ নিয়ে কাজ করছেন।
সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান