রাশিয়ার ঘোষিত সেই বিষয়টি নিয়ে ধোঁয়াশায় যুক্তরাজ্য

সারাবিশ্ব

রাশিয়া ইউক্রেনে কীভাবে আরও সৈন্য মোতায়েন করবে তা স্পষ্ট নয় বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য। বার্তা সংস্থা রয়টার্স রোববার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, রাশিয়া কীভাবে তার সশস্ত্র বাহিনীতে সৈন্য বাড়ানোর ডিক্রিটি কার্যকর করবে তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে রাশিয়ার সৈন্য বৃদ্ধির এই ঘোষণায় ইউক্রেনে মস্কোর সামরিক শক্তি উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়বে না বলেই মনে করছে যুক্তরাজ্য।

এর আগে ২৫ আগস্ট রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বৃহস্পতিবার দেশটির সশস্ত্র বাহিনী নিয়ে নতুন একটি ডিক্রি জারি করেন।
এ ডিক্রিতে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য সংখ্যা ১৯ লাখ থেকে বাড়িয়ে ২০ লাখ ৪০ হাজার করার নির্দেশ দেন তিনি। এর মধ্যে সেনার সংখ্যা থাকবে ১ লাখ ৩৭ হাজার।

আগামী বছরের ১ জানুয়ারী থেকে এটি কার্যকর হবে। এরমাধ্যমে সেনার সংখ্যা হবে ১০ লাখ ১৫ হাজার।

এদিকে ইউক্রেনে রুশ সেনারা যখন কথিত বিশেষ সামরিক অভিযান চালাচ্ছে তখন সশস্ত্র বাহিনীর সেনা সংখ্যা বৃদ্ধির নির্দেশ দিলেন প্রেসিডেন্ট পুতিন।

তবে কিভাবে সেনার সংখ্যা বাড়ানো হবে সেটি পুতিনের ডিক্রিতে স্পষ্ট করা হয়নি।

সেনা সংখ্যা বাড়াতে কি নতুন করে নিয়োগ দেওয়া হবে, নাকি স্বেচ্ছাসৈনিকদের সংখ্যা বাড়ানো হবে নাকি দুটিই করা হবে সেটি জানা যায়নি।

রাশিয়ার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, তারা ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান চালাতে শুধুমাত্র পেশাদার সৈনিকদের পাঠিয়েছে।