আবারও কি কৃষ্ণ সাগর অবরুদ্ধ করার ইঙ্গিত দিলেন পুতিন?

Slider right সারাবিশ্ব

রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার পরই কৃষ্ণ সাগর অবরুদ্ধ করে ফেলে রুশ নৌবাহিনী। এরপর ইউক্রেনের বন্দরগুলো বন্ধ হয়ে যায়। এতে করে ইউক্রেনে আটকে থাকা গমসহ অন্যান্য খাদ্য শস্য আটকে যায়। যার ফলে বিশ্বে খাদ্য সংকট দেখা দেওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়।

অবশেষে জুলাইয়ে তুরস্ক ও জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় কৃষ্ণ সাগরে অবরোধ তুলে নিতে সম্মত হন পুতিন। এরপর বিশ্ব বাজারে আসা শুরু করে ইউক্রেনের শস্য। স্থিতিশীল হয় খাদ্যের বাজার।

তবে বুধবার রাশিয়ায় একটি বাণিজ্য ফোরামে পুতিন অভিযোগ করেছেন, ইউক্রেনের শস্য উন্নয়নশীল দেশগুলোকে না দিয়ে সেগুলো ইউরোপের উন্নত দেশগুলোতে পাঠানো হচ্ছে।

পুতিন দাবি করেন, অবরোধ তুলে নেওয়ার পর ইউক্রেন থেকে যতটুকু শস্য বের হয়েছে তার মাত্র তিন ভাগ উন্নয়নশীল দেশগুলোকে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টিকে ‘প্রতারণা’ বলেও অবহিত করেন পুতিন।

এরপর তিনি জানান, এটি নিয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের সঙ্গে কথা বলবেন তিনি। চুক্তিটি পুনর্বিবেচনা করার ইঙ্গিতও দিয়েছেন পুতিন।

আর তার এ ইঙ্গিতের মাধ্যমে শঙ্কা তৈরি হয়েছে ফের কৃষ্ণ সাগর অবরুদ্ধ করতে পারে রুশ নৌবাহিনী। এদিকে এই একই অনুষ্ঠানে পুতিন হুমকি দিয়েছেন, যদি রাশিয়ার জ্বালানির মূল্য নির্ধারণ করে দেওয়া হয় তাহলে তিনি ইউরোপে সব ধরনের জ্বালানি পাঠানো বন্ধ করে দেবেন। ইউরোপিয়ানদের ঠাণ্ডায় জমিয়ে ফেলার হুমকিও দিয়েছেন তিনি। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান