‌‘দোনেৎস্কের ৪০ ভাগ এখনো ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণে’

Slider right সারাবিশ্ব

ইউক্রেনের কাছ থেকে দখলকৃত চারটি অঞ্চলে গণভোট চালিয়ে সেগুলোকে নিজ দেশের ভূখণ্ড হিসেবে ঘোষণা করতে যাচ্ছে রাশিয়া। তবে এই চার অঞ্চলের একটি দোনেৎস্কের ৪০ শতাংশ এলাকা এখনো ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণে বলে জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্টের দপ্তর ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ। শুক্রবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দিতে পারেন বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

দিমিত্রি পেসকভ বলেন, পুরো দোনেৎস্কের নিয়ন্ত্রণ না পাওয়া পর্যন্ত রাশিয়াকে যুদ্ধ চালিয়ে যেতে হবে।

সম্প্রতি ইউক্রেনের যে চারটি এলাকায় কথিত গণভোট হয়েছে, সেগুলো হলো— পূর্বে লুহানস্ক ও দোনেৎস্ক এবং দক্ষিণে জাপোরিঝিয়া ও খেরসন। তবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি না থাকায় স্বাধীনভাবে কেউ এ গণভোট পর্যবেক্ষণ করেনি। সশস্ত্র সেনাদের প্রহরায় কর্মকর্তারা ভোটারদের ঘরে ঘরে গেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মিডিয়ার যুক্তি, নিরাপত্তার খাতিরেই সশস্ত্র রক্ষীদের ব্যবহার করা হয়েছে।

বিবিসির সংবাদদাতারা বলছেন, এটি স্পষ্ট যে, ভোটারদের ভয় দেখানোও একটা উদ্দেশ্য ছিল। এসব দখলকৃত অঞ্চলে মস্কো যেসব কর্মকর্তাকে বসিয়েছে, তাদের দাবি- গণভোটে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে প্রায় সবাই অঞ্চলগুলোকে রাশিয়ার অংশ করে নেওয়ার পক্ষে মত দিয়েছেন। তবে ইউক্রেন এবং তার মিত্র দেশগুলো অবশ্য এটি প্রত্যাখ্যান করেছে। তারা বলছে, কথিত গণভোটের অজুহাত দেখিয়ে এসব অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনের অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়া হচ্ছে।