বাইডেনকে রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি আলোচনার তাগিদ

Slider সারাবিশ্ব

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে মস্কোর সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে চিঠি দিয়েছেন দেশটির ক্ষমতাসীন ডেমোক্র্যাট পার্টির ৩০ প্রতিনিধি পরিষদ সদস্য। যুদ্ধ বন্ধের জন্য তারা অন্য কূটনৈতিক উপায় অবলম্বনেরও আহ্বান জানান।

সোমবার মার্কিন কংগ্রেশনাল প্রগ্রেসিভ ককাসের চেয়ারপারসন প্রমিলা জয়াপাল হোয়াইট হাউসে ওই চিঠি পাঠানোর কথা জানিয়েছে। মার্কিন কংগ্রেসম্যানদের এ আহ্বান সত্ত্বেও জো বাইডেনের প্রশাসন ইউক্রেনকে অস্ত্র সরবরাহ করে যাচ্ছে। খবর সিএনএনের।

প্রমিলা জয়াপাল হোয়াইট হাউসে এ চিঠি পাঠানোর কথা জানিয়ে বলেন, ইউক্রেনে ধ্বংসযজ্ঞ, পরমাণু যুদ্ধের হুমকি এবং ইউরোপ সফরে তিনি যে অর্থনৈতিক সংকট দেখেছেন, তার পরিপ্রেক্ষিতে আলোচনার জন্য এ চিঠি দিতে উৎসাহী হয়ে ওঠেন।
জয়াপাল বলেন, যদিও আমরা এ চিঠি দিয়েছি, তবে আলোচনার টেবিলে ফেরার ব্যাপারে মূল সিদ্ধান্ত ইউক্রেনের ওপর নির্ভর করছে। কিয়েভ সরকারকে শত শত কোটি ডলারের অস্ত্র দিয়ে আমেরিকা বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করার ভেতর দিয়ে এই সংকট সমাধান করার সম্ভাব্য সব ধরনের উপায় অবলম্বনের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য এক ধরনের দায়িত্ববোধ তৈরি হয়েছে।
এ কারণে এখনো ক্ষতি কমিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসা উচিত, যাতে ইউক্রেন সংকট শান্তিপূর্ণ উপায়ে সমাধান করা যায়।

চিঠিতে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের প্রতি রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি আলোচনার পথ উন্মুক্ত করার আহ্বান জানানো হয়েছে। তবে এ সংকট সমাধানের জন্য ইউক্রেনের পক্ষ থেকে কী ধরনের ছাড় দেওয়া উচিত সে সম্পর্কে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের সদস্যরা কোনো কথা বলেননি।

এ চিঠিতে যেসব আইনপ্রণেতা সই করেছেন, তার মধ্যে রয়েছেন- ডেমোক্র্যাট দলের প্রগতিশীল কংগ্রেসম্যান হিসেবে পরিচিত রো খান্না, রাশিদা তালিব, ইলহান ওমর, আয়ানা প্রেসলি এবং আলেজান্দ্রিয়া ওকাসিও কর্টেজ।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত মার্কিন সরকার ইউক্রেনকে ছয় হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র এবং সামরিক সরঞ্জামের পাশাপাশি অর্থনৈতিক সহায়তা দিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, আগামী জানুয়ারির আগেই মার্কিন প্রশাসন ইউক্রেনের জন্য আরও পাঁচ হাজার কোটি ডলারের সহায়তা প্যাকেজ পাস করবে।