সাকিব আল হাসান

সাকিবকে অনুসন্ধান কমিটির তলব

Slider Slider right জাতীয় সারাবাংলা সারাবিশ্ব

আচরণবিধি না মানায় সাকিবকে তলব সাকিব আল হাসান
ঢাকা: জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আচরণবিধি না মেনে জনসংযোগ, শোডাউন করায় আওয়ামী লীগের মাগুরা-১ আসনের মনোনীত প্রার্থী ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে তলব করেছে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি। এই কমিটি দেওয়ানী আদালতের ক্ষমতাপ্রাপ্ত হয়ে ভোটের দায়িত্ব পালন করছেন।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি এবং যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ (প্রথম আদালত, মাগুরা) সত্যব্রত শিকদার তাকে সশরীরে হাজির হয়ে কারণ দর্শাতে বলেন।

নির্দেশনায় বলা হয়, আপনি সাকিব আল হাসান, মাগুরা-১ আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত এম.পি পদপ্রার্থী হিসেবে ঘোষণার পর গত ২৯ নভেম্বর, বুধবার ঢাকা থেকে মাগুরায় আগমনের সময় পথিমধ্যে কামারখালী এলাকা থেকে শোডাউন করে গাড়িবহর নিয়ে মাগুরা শহরে প্রবেশ করেন এবং নাগরিক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এতে জনগণের চলাচলের পথে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করেন, যাহ বিভিন্ন পত্র পত্রিকা, ইলেকট্রিক মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এর দ্বারা আপনি সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণবিধিমালা ২০০৮ এর ৬ (ঘ), ৮ (ক), ১০ (ক) এবং ১২ ধারার বিধান লঙ্ঘন করেছেন।
ওই আইন ভঙ্গের কারণে কেন আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না কমিটির দপ্তরে আগামী ১ ডিসেম্বর শুক্রবার বিকাল ৩টায় সময় সশরীরে উপস্থিত হয়ে লিখিত ব্যাখ্যা প্রদানের জন্য নির্দেশ দেওয়া হলো।
সাকিব আল হাসান

এছাড়াও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ও ঢাকা-১৯ আসনের সম্ভাব্য প্রার্থী ডা. মো. এনামুর রহমান এমপিকে আচরণবিধি ভঙ্গ করার কারণ দর্শাতে এবং নারায়ণগঞ্জের এক সম্ভাব্য প্রার্থীকে তলব করেছেন সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি।

ইসি ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ সময়। প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর রিটার্নিং কর্মকর্তারা তা বাছাই করবেন ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর।

রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কমিশনে আপিল দায়ের ও নিষ্পত্তি ৫ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৭ ডিসেম্বর। রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রতীক বরাদ্দ করবেন ১৮ ডিসেম্বর। নির্বাচনী প্রচার চলবে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত। আর ভোটগ্রহণ হবে ৭ জানুয়ারি (রোববার)।